প্রতিদিন একটি আপেল কেনো খাবেন? Leave a comment

আমরা হালকা ক্ষুধা লাগলে খুব সহজেই বাহিরে থেকে ফাষ্ট ফুড খেয়ে ফেলি। কিন্তু এ সকল বাহিরের খাবার দেহের জন্য কতটা ক্ষতিকর তা আমরা সকলেই কমবেশি জানি। তাহলে হালকা ক্ষুধার সমাধান কি? এক্ষেত্রে আমরা খুব সহজেই খেয়ে নিতে পারি একটি ফল। সারা বছরই আমাদের হাতের কাছে বিভিন্ন ধরনের ফল থাকে সেগুলোর মধ্যে আপেল অন্যতম। যেহেতু আমি আজকের ব্লগটি আপেল নিয়ে লিখছি তাই কেনো আমরা আপেল খাবো, এর গুণাগুণটি কি সেগুলো বর্ণনা করছি।

বিভিন্ন ফলে কতটা এ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রয়েছে তা জানতে একটি গবেষনা করা হয়েছিল। এর মধ্যে লাল ও সবুজ আপেল যথাক্রমে ১২ এবং ১৩তম অবস্থানে রয়েছে।

আপেলের পুষ্টিগুণ অনেক তার মধ্যে অন্যতম হল আপেল বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার দূর করতে সহায়তা করে। আপেল খেলে অগ্নাশয়ের ক্যান্সারের সম্ভাবনা প্রায় ২৩ ভাগ কমে যায়।এছাড়া এটি লিভার, স্তন এবং কোলনের মধ্যে ক্যান্সারের কোষ বেড়ে উঠতে বাধা দেয়। এছাড়াও আপেলের মধ্যে যে পরিমান ফাইবার থাকে তা মলাশয়ের ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে।

আপেলের মধ্যে প্রচুর পরিমান ফাইবার থাকে। যা রক্তে শর্করার পরিমান সঠিক রাখতে সহায়তা করে এর ফলে ডায়বেটিস হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যায়।

আপেল আমোদের হার্ট ভালো রাখতে সাহায্য করে। আপেলে থাকা ফাইবার রক্তে কোলেষ্টোরল কমাতে সহায়তা করে। এছাড়া আপেলের খোসার মধ্যে থাকা ফেনলিক উপাদান রক্তনালীকা থেকে কোলেস্টোরল দূর করে দেয়। এতে হার্টে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক থাকে।

আপেল দাঁতের জন্য ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে। ফলে দাঁত ভালো থাকে।

এছাড়াও আপেল আমাদের হজমে সহায়তা করে প্রতিদিন আপেল খেলে হজমের জন্য উপকারী ব্যাকটেরিয়া তৈরি হয় পেটে, ফলে হজম শক্তি বৃদ্ধি পায়।

তাহলে দেহের জন্য যেই ফলটি এতটা উপকারী আমরা প্রতিদিন সামান্য ক্ষুধা লাগলে হালকা নাস্তা হিসেবে ফাস্টফুড বা ভাজা-পোড়া না খেয়ে আপেল খেতে পারি। এতে যেমন ফাষ্ট ফুড এর ক্ষতিকর দিকগুলো থেকে মুক্তি পাবে শরীর তেমনি শরীর পাবে প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান।

লিখেছেন :-
Musarrat Rahman Achal
Head Of Marketing
Nandonik Online Shopping
Spread the love
  • 22
  •   
  •   
  •  
    22
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *